তীব্র গরমে মাদ্রাসায় ফ্যান বিতরণ করলেন সুমন রাফি

আমানুল্লাহ আসিফ,বিশেষ প্রতিনিধি:

তীব্র গরমে হাঁসফাঁস অবস্থা। এমন অবস্থায় বিপর্যস্ত জনজীবন। গরম থেকে বাঁচতে একটু ফ্যান-এসির নিচে থাকতে মরিয়া সর্বসাধারন। এই অবস্থায় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে সরকারি সহায়তায় ফ্যান-এসির ব্যবস্থা করা হচ্ছে।
তীব্র গরমে খুবই কষ্টে আছে মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা। তবে সরকারিভাবে কোনো ইলেকট্রিক পণ্য জুটেনি তাদের কপালে। এমতাবস্থায় আশার আলো নিয়ে আসলেন মানবতার ফেরিওয়ালা হেদায়েতুর রাফি সুমন উরফে সুমন রাফি। সুমন রাফি ফরিদপুর জেলার বোয়ালমারী উপজেলার বেশ কয়েকটি মাদ্রাসায় ফ্যান বিতরণ করেছেন। শুধু ফ্যান বিতরণ নয় উপজেলার উন্নয়নমূলক সকল কাজেই অংশগ্রহণ করেন তিনি। তিনি প্রায় দুই যুগ ধরে বোয়ালমারী ও তার বাইরের এলাকায় অসহায় পরিবারের সেবা করে যাচ্ছেন। নিঃস্বার্থভাবে মানুষের একটু দোয়ায় আসায় উপার্জনের সিংহভাগ টাকাই অসহায়দের মাঝে ব্যায় করেন সুমন রাফি।
তার চলমান কার্যক্রমের ভিত্তিতে গতকাল বোয়ালমারী পৌর সদরের কামারগ্রাম অবস্থিত পাঞ্জেরী মডেল মাদ্রাসার পবিত্র কোরানুল কারিমের শিক্ষার্থীদের জন্য সিলিং ফ্যান হস্তান্তর করেন। সুমন রাফির উপহারের ফ্যান পেয়ে খুব খুশি মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা। সুমন রাফির প্রতি কৃতজ্ঞতা স্বীকার করেছেন মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ। এসময় সুমন রাফি বলেন আমি কিছু প্রতিষ্ঠানে সহযোগিতা করেছি। কিন্তু আরো অনেক মাদরাসায় এই মুহূর্তে ফ্যান হস্তান্তর জুরুরী।

সুমন রাফি নিম্নরূপ মাদ্রাসাগুলোতে এখনো ফ্যানের দরকার বলে জানান পাঞ্জেরী মডেল মাদ্রাসা দুইটি,বোয়ালমারী চৌরাস্তায় অবস্থিত বায়তুল মা আরিফ আল-ইসলামিয়া মাদ্রাসা পাঁচটি,তামারহাজী বরকতিয়া হাফেজিয়া মাদ্রাসা দুইটি,তামারহাজী মহিলা মাদ্রাসা দুইটি,বন্ডপাশা ইমামিয়া হাফেজিয়া মাদ্রাসা তিনটি,বনমালিপুর মাদ্রাসা ও এতিমখানা চারটি। এসময় কোরআনের পাখিদের গরম নিবারণে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন সুমন রাফি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *