নন্দীগ্রামে লাইসেন্স বিহীন অবৈধ নিউ মডেল ক্লিনিকে ভুল চিকিৎসায় প্রসূতির মৃত্যু

বেল্লাল হোসেন বাবু,
নিজস্ব প্রতিবেদক :

বগুড়ার নন্দীগ্রাম বাসস্ট্যান্ডে অবস্থিত লাইসেন্স বিহীন অবৈধ নিউ মডেল ক্লিনিকে ভুল চিকিৎসায় আফসানা মিমি (১৮) নামে এক প্রসূতির মৃত্যু ঘটেছে। পরে মোটাংকের টাকার বিনিময়ে আপস মিমাংসা করার চেষ্টা চলছে।

প্রাপ্ত তথ্যে জানা গেছে, নাটোর জেলার সিংড়া উপজেলার রামানন্দ খাজুরা ইউনিয়নের আনুলিয়া গ্রামের আরিফুল ইসলামের মেয়ে আফসানা মিমিকে গত দুই বছর পূর্বে একই উপজেলার সুকাশ ইউনিয়নের ছিলামপুরপুর গ্রামের আয়নাল হোসেনের ছেলে শামীম হোসেনের সাথে বিয়ে হয়। এরপর আফসানা মিমি গর্ভবর্তী হয়।

এমতাবস্থায় আফসানা মিমির প্রসব ব্যথা উঠলে গত শুক্রবার (২৪ মে) সকাল ৬টার দিকে বগুড়া জেলার নন্দীগ্রাম নিউ মডেল ক্লিনিকে ভর্তি করানো হয়। ৩ঘন্টা ভর্তি থাকার পর সকাল ৯টার দিকে আফসানা মিমিকে সিজার করেন পিকে শাহী নামে একজন ডাক্তার। সিজারে আফসানা মিমির গর্ভ থেকে একটি ফুটফুটে কন্যা সন্তান জন্ম হয়।

নবজাতক সুস্থ থাকলেও ধীরে ধীরে প্রসূতি আফসানা মিমির রক্তক্ষরণ শুরু হয়। এক পর্যায়ে সে কঠিন অসুস্থ হয়ে পড়লে নিউ মডেল ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ নিরুপায় হয়ে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পরামর্শ দেন। আফসানা মিমির মা প্রসূতি মেয়ে ও নবজাতককে নিয়ে দ্রুত বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে ভর্তি করে দেন। সেখানে ভর্তি করার কিছুক্ষণ পরেই সে মারা যায়। এ ব্যাপারে আফসানা মিমির ভাসুর বলেন, ডাক্তারের ভুল চিকিৎসার কারণে আমার ভাইয়ের স্ত্রীর মৃত্যু হয়েছে।লাইসেন্স বিহীন নিউ মডেল ক্লিনিকের পরিচালক গৌতম কুমার বলেন, আফসানা মিমির মৃত্যু হয়েছে এই বিষয়টি সত্য। তবে তার পরিবারের সাথে আপস মিমাংসা করার চেষ্টা চলছে।

এ বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. তোফাজ্জল হোসেন মন্ডলের সাথে কথা বললে তিনি বলেন, নিউ মডেল ক্লিনিকে প্রসূতি মারা যাবার ঘটনার কথা আমি শুনেছি। এ বিষয়ে যদি কেউ অভিযোগ করে তাহলে ওই ক্লিনিকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *