প্রকাশিত সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ


গত ২০ মে, সমবার ডেইলী নিউজ বাংলা নামের একটি অনলাইন নিউজ পোর্টালে
“বাগমারায় মাছ চুরি মামলার পর অস্ত্র দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা” শিরোনামের সংবাদটি আমি/ আমাদের দৃষ্টি গোচর হয়েছে। যাহা সম্পূর্ন মিথ্যা, বানোয়াট এবং ভিত্তিহীন। আমি/ আমরা এই প্রকাশিত মিথ্যা সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। মিথ্যা সংবাদের তথ্য অনুযায়ী গত ২০ সালের নভেম্বর মাসে উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনের সময় হাতিয়ার বিল থেকে ২লক্ষ ধার (কর্য) নেন নরদাস ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও নরদাস কলেজের অধ্যক্ষ গোলাম সারওয়ার আবুল, এমন ঘটনা আদো সত্য নয়। গত ১৮ মে (শনিবার) নরদাশ ইউপির মনোপাড়া গ্রামের একটি পুকুরে মাছ চুরির অপরাধে উপজেলার চন্ডিপুর গ্রামের আ: গফুরের ছেলে নুরুল ইসলামরে দায়ের করা মামলাকে নাটকীয় মামলা বলা হয়েছে তাহা সত্য নয়, বরং গত ২০/০৫/২০২৪ ইং তারিখে বিজ্ঞ আদালত মামলার জামিন শুনানির পর অপরাধীর জামিন আবেদন খারিজ করে তাকে জেল হাজতে প্রেরন করেন।

মামলার তদবির করতে গিয়ে আমার নামে নগদ পঞ্চাশ হাজার টাকা নেওয়ার যে অভিযোগ তারা করেছে তাহা সত্য নয়। বরং তারা আমি/ আমাদেরকে, সামাজিক ও রাজনৈতিক ভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার অসৎ উদ্যেশ্যে এমন মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন সংবাদ প্রকাশ করেছে। ১৯ মে রাতে মামলার বাদি নুরুলসহ নরদাশ ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ গোলাম সারোয়ার আবুলের নেতৃত্বে কলেজ শিক্ষক আব্দুর রাজ্জাক, আব্দুস সালাম, আব্দুল মজিদ, ডেমো মমতাজ, কর্মচারী আ: মতিনসহ অজ্ঞাতনামা বেশ কয়েকজন মিলে বেলাল (৩৫) নামের এক ভুটভুটি চালককে বেধড়ক পিটিয়েছে এমন ঘটনাও সত্য নয়। বরং বেলাল সহ ৪/৫ জন মিলে মাছ চুরি মামলার বাদী মো: ‍নুরুল ইসলাম কে হত্যার উদ্যেশে ওত পেতে বসে থাকার সময় টের পেয়ে এলাকার সাধারণ জনগন তাকে অস্ত্রসহ আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। পুলিশ মুচলেকা নিয়ে তাকে পরিবারের হাতে হস্তান্তর করে। মাছ চুরি মামলার ১ জন আসামী হাজতে থাকলেও অপর ৮ জন তারা এখনও গ্রেফতার হয়নি। বরং এই মামলার ১ নম্বর আসামী রফিক বাহীনির লোকজন আমাকে জীবন নাশের হুমকি দিচ্ছে। বর্ত মানে আমি সহ আমার পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।
আমি/আমাদের জড়িয়ে সাংবাদিকদের মিথ্যা তথ্য দিয়ে যে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে আমরা তার তীব্র নিন্দা ও প্রতিাদ জানাচ্ছি।সেই সাথে বস্তুুনিষ্ঠ ও সত্য সংবাদ প্রকাশ করার জন্য সাংবাদিক ভাইদের আহবান জানাচ্ছি।

প্রতিবাদ কারী:
মো: নুরুল ইসলাম
মো: শহিদুল ইসলাম
মো: গোলাম সারোয়ার (আবুল)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *