বড়াইগ্রামে জমি সংক্রান্ত বিরোধে বসতবাড়ির সীমানা প্রাচীর ভাঙচুর ও হত্যার হুমকি

বড়াইগ্রামে জমি সংক্রান্ত পূর্ব শত্রুতার জেরে মোজাজ্জাজ আল-মাদলাজী নাঈম নামের এক ব্যক্তির বসত বাড়ির জিআই তারের সীমানা প্রাচীর ভেঙে ও হত্যার হুমকি দিয়েছে প্রতিপক্ষেরা। মোজাজ্জাজ আল-মাদলাজী নাঈম বড়াইগ্রাম সরকারি অনার্স কলেজের প্রভাষক আবু সাঈদের ছেলে। ও বড়াইগ্রাম পৌরসভার বাসিন্দা।

ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার বড়াইগ্রাম পৌরসভার হলমোড় এলাকায়।

অভিযোগের সুত্র ও ভুক্তভোগী নাঈম জানান, দেশের কোন রকম নির্মাণবিধি না মেনেই সে সীমানা ঘেষে বাড়ি নির্মাণের কাজ করছে। এতে আমার সীমানাপ্রাচীর হিসেবে দেওয়া জি.আই তারের বেড়া ক্ষতিগ্রন্থ হচ্ছে। তা সত্তেও আমি বিবাদ এড়ানোর জন্য কোন
প্রকার বাধা দেইনি। আজকে বেড়ার উপর দাঁড়িয়ে মিস্ত্রি কাজ করতে থাকলে আমি এভাবে বেড়ার উপরে উঠে কাজ করতে নিষেধ করি। একথা শুনে আমিরুল তেড়ে আসে ও আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে এবং হত্যার হুমকি দিয়ে বার বার বলতে থাকে ‘তোর কল্লা নামায় ফেলবো’, ‘আর একটা কথা বললে জবাই করবো’ ইত্যাদি। একপর্যায়ে সে আমার জি.আই তারের বেড়া ভেঙ্গে দেয়।

ভুক্তভুগী প্রভাষক আবু সাঈদ, তারা দীর্ঘদিন ধরেই আমার পরিবারকে নানা ভাবে জালাতন করে আসছে, আমি বিবাদে জরানোর ভয়ে চুপ করে সরে এসেছি। ইতিপূর্বেও আমরা তাদের ব্যাপারে বড়াইগ্রাম থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত আমিরুল ইসলাম জানান, পূর্বে আমাদের যাতায়াতের জন্য প্রশস্ত রাস্তা দেওয়ার কথা বললেও তারা আমাদের জমির ওপর দিয়ে প্রচীর দিয়েছে। এতে আমার পরিবারের যাতায়াতের অসুবিধা হচ্ছে। আমি মোটরসাইকেল নিয়ে বাড়িতে যাওয়ার সময় পরে গিয়ে অল্পের জন্য বড় দুর্ঘটনা ঘটেনি। কত বড় নেতা আছে নিয়ে আসুক আমাদেরও কম নেই। যতবার প্রাচীর দিবে ততবারই ভেঙে দিবো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *