চলতি বছর ২০ হাজার বাংলাদেশি স্টুডেন্ট যুক্তরাজ্যের ভিসা পেয়েছে

নিউজ রুমঃ কোভিড পরবর্তী সময়ে ২০২২ সালে যুক্তরাজ্যে স্টুডেন্ট ভিসা বেড়েছে প্রায় ৭১ শতাংশ। হোম অফিসের তথ্য মতে চলতি বছর বাংলাদেশ থেকে প্রায় ২০ হাজার বাংলাদেশি শিক্ষার্থী ভিসা পেয়েছে। তবে পোস্ট গ্রাজুয়েট লেভেলে স্পাউসদের ইংরেজি ভাষার দক্ষতার শর্তারোপের প্রস্তাবনা শিক্ষার্থীদের নিরুৎসাহিত করবে বলছেন ইমিগ্রেশন বিশেষজ্ঞরা।

সূত্রমতে, চলতি বছর জুন পর্যন্ত যুক্তরাজ্যে স্টুডেন্ট ভিসা পেয়েছে প্রায় ৪ লাভ ৮৬ হাজার শিক্ষার্থী যা ২০১৯ সালের তুলনায় ৭১ শতাংশ বেশি।

যুক্তরাজ্যের অবিভাসন কর্তৃপক্ষ হোম অফিস ন্যাশনাল স্ট্যাটিসটিকসের তথ্য অনুযায়ী মোট প্রাপ্ত ভিসার মধ্যে ৮১ হাজার ভিসা ইস্যু হয়েছে স্টুডেন্টদের ডিপেডেন্ট বা স্পাউসদের (স্বামী বা স্ত্রী)।

ব্রিটেনের শীর্ষ দৈনিক দ্যা ডেইলি টেলিগ্রাফের প্রতিবেদন বলছে চলতি বছর যুক্তরাজ্যে ভিসা পাওয়া ৯৩ হাজার ভারতীয় শিক্ষার্থীর প্রায় ২৫ হাজার ও নাইজেরিয়ার ৪৩ হাজার শিক্ষার্থীর প্রায় ৩২ হাজার ভিসাই তাদের স্পাউস বা ডিপেন্ডেন্টদের।

যুক্তরাজ্য থেকে ব্যরিস্টার আবুল কালাম জানান, বর্তমান নিয়মে স্পাউসের ভিসা পাওয়ার ক্ষেত্রে ইংরেজি জ্ঞানের বাধ্যবাধকতা না থাকার এই প্রক্রিয়ায় অভিবাসনের ইতি টানতে চাইছে ব্রিটেন।

তবে স্টুডেন্টদের ব্রিটেনে ভর্তি সহায়তা দানকারী এ এইচ জেড -এর পরিচালক গোলাম মর্তুজা বলছেন, অন্য যে কোন সময়ের চেয়ে বর্তমানে ব্রিটেনে ভিসা পদ্ধতি শিক্ষার্থীদের জন্য সহজ হওয়ায় চলতি বছর রেকর্ড সংখ্যক বাংলাদেশি শিক্ষার্থী ভিসা পেয়েছে।

মানবাধিকার আইনজীবী ব্যরিস্টার মনোয়ার হোসেন মনে করেন, ভিসা প্রদানের ক্ষেত্রে স্পাউসদের ইংরেজি জ্ঞানের বাধ্যবাধকতা আরোপ সমাজে বৈষম্য ও পারিবারিক ভাঙন সৃষ্টি করবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *