বগুড়ার নাগর নদী এখন মাটি বালু ও ভূমি দস্যু হাসুর দখলে

মোঃ রাকিবুল ইসলাম রাকিব বগুড়া জেলা প্রতিনিধিঃ-

বগুড়া জেলার কাহালু উপজেলার কালাই ইউনিয়নের মাঝে দিয়ে প্রবাহিত নাগর নদী।

আমাদের কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর নাগর নদীকে নিয়ে কবিতা লিখে ছিলেন “আমাদের ছোট নদী চলে বাঁকে বাঁকে বৈশাখ মাসে তার হাটু জল থাকে” কিন্তু বতর্মানে নদীর যে অবস্থা দেখতে মনে হয় এ যেন সাগর।

মাটি বালু ও ভূমি দস্যু সাইফুল ইসলাম হাসুর কারনে।

নাগর নদীর কয়েকটি পয়েন্ট থেকে প্রতিদিন শ্যালো মেশিন দিয়ে অবৈধ ভাবে উত্তোলন করা হচ্ছে শত শত ট্রাক বালু ও স্কেভেটর (বেকু) মেশিন দিয়ে নদীর পাড় কেটে ট্রাক দিয়ে মাটি নিয়ে যাচ্ছে বিভিন্ন ইট ভাটায়। ফলে নদীর আশে পাশের গ্রামের বাড়ীঘর ও আবাদি জমির ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির সম্ভ্যবনা রয়েছে।

বগুড়ার কাহালু উপজেলার কালাই ইউনিয়নের কালাই ঘোনপাড়া, কালাই শিবতলা হাটের পাশ্বে শ্বশান ঘাট থেকে প্রতিদিন ভূমি দস্যু হাসু শত শত ট্রাক মাটি ও বালু বিভিন্ন ইট ভাটাসহ বিভিন্ন স্থানে নিয়ে যাচ্ছে। নাগর নদীর আশে পাশের গ্রাম গুলো দিনদিন ঝুঁকির মধ্যে পড়ছে। আবার কিছু কিছু মাটির ঘর বাড়িতে ফটল ধরেছে। নদীর আশে পাশের আবাদী জমি বিলীন হয়ে যাচ্ছে। নদীর তীরবর্তী অনেক বাড়ীঘর হুমকির মূখে পড়ছে। শিবতলা হাটের পার্শে নাগর নদীর উপরে কালাই ঘোনপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ‍্যালয় ও উচ্চ মাধ্যমিক বিদ‍্যালয় হুমকির মুখে পড়েছে। মাঝে মধ্যে প্রশাসন দু-একটি ভ্রাম্যমান অভিযান পরিচালনা করলেও মূল পয়েন্টের মালিক বালু ও ভূমি দুস‍্য হাসু থাকছে ধরা ছোঁয়ার বাইরে। বালু ও ভূমি দুস্য হাসু প্রভাবশালী হওয়ায় এলাকার জনসাধারণ প্রতিবাদ করেও কোন সমস্যা সমাধান করতে পারছে না তারা। বরং উল্টো ভূমি দুস্য হাসু তাদেরকে বিভিন্ন ভাবে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে আসছে। অত্র এলাকার জনসাধারণ উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে মাটি বালু ও ভূমি দস‍্য সাইফুল ইসলাম হাসুর নামে একাধিক বার অভিযোগ করেছে গ্রামবাসি ও স্কুল কমিটি কিন্তু কোন লাভ হয়নি। এলাকাবাসী স্কুল কমিটি ও স্কুলের ছাত্র ছাত্রীরা উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সু-দৃষ্টি ও হস্তক্ষেপ কামনা করেন এবং একবার এসে দেখে যেতে বলেন নাগর নদীকে হাসু কি ভাবে সাগর বানিয়েছে।

 

এ ব্যাপারে কাহালু উপজেলা নির্বাহী অফিসার এর সাথে কথা বলা হলে তিনি জানান মাঝে মধ্যে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এলাকাবাসী স্কুল কমিটি ও স্কুলের ছাত্র ছাত্রীদের দাবী মাটি বালু ও ভূমিদস‍্য সাইফুল ইসলাম হাসুর হাত থেকে নাগর নদীকে রক্ষা করে হাসুর বিরুদ্ধে আইনগত ব‍্যবস্থা নিতে যাতে করে ভবিষ্যতে অন্য কেহু এই রকম নদীকে সাগর বানাতে না পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *