রাজশাহীতে পুলিশকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে দারুচিনি পরিত্যাক্ত ভবন নিউমার্কেট এলাকায় চলে নেশা ও অনৈতিক কার্যকলাপ

রাজশাহীতে পুলিশকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে দারুচিনি পরিত্যাক্ত ভবন নিউমার্কেট এলাকায় চলে নেশা ও অনৈতিক কার্যকলাপ

রাজশাহী মহানগরীর গুরুত্বপূর্ণ এলাকার নিউমার্কেট এখানে দারুচিনি প্লাজা নামের একটি পরিত্যাক্ত ভবন আছে।দুঃখজনক হলেও সত্য যে এলাকার ইয়াবা, হিরোইন, গাঁজা, জুয়া খেলা, এই পরিত্যক্ত মার্কেট দারুচিনি প্লাজার নিত্যদিনের সঙ্গী। সন্ধ্যা নামলেই বিভিন্ন এলাকা থেকে হিরোইন গাজাখোর ইয়াবা খোর এই দারুচিনি এলাকায় ঘোরাফেরা শুরু করে এতে যেমন আইন-শৃঙ্খলার অবনতি হচ্ছে। তেমনি যুবসমাজ নষ্ট হচ্ছে দেখার যেন কেউ নেই। এই এলাকায় ইয়াবা ও হেরোইন এর হাট বসে বললেই চলে। এমন কোন অনৈতিক কাজ নাই যে দারুচিনি প্লাজায় পরিত্যক্ত দোকান ঘর গুলোতে হয় না। ভবনে সরজমিনে গিয়ে ঘুরে দেখা যায়,পরিত্যক্ত দোকানঘর গুলোর মধ্যে চলে ইয়াবা সেবন হিরোইন সেবন গাজা ফেন্সিডিল তো আছেই । এতে এলাকার স্থানীয় বাসিন্দাদের মনে আতঙ্ক বিরাজ করে প্রতিনিয়ত আরও জানা গেছে স্থানীয় লোকজন এসব বাধা দিতে গেলে নেমে আসে তার উপরে দুর্ভোগ শুরু হয় নির্যাতন ভয়ে মুখ খুলতে চাই না এলাকার বাসিন্দারা। বারবার আইন-শৃঙ্খলা বাহীনিকে পরিস্থিতি অবহিত করেও পাওয়া যায়নি আসা স্বরূপ ফল।এলাকার আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি এতই ভেঙে পড়েছে যে, চুরি ছিনতাই রাহাজানি নিত্যদিনের সঙ্গী হয়ে দাঁড়িয়েছে। একটু রাত হলে ওই এলাকার চলাফেরা বন্ধ হয়ে যায় সাধারণ মানুষের। নিউমার্কেট বাণিজ্যিক এলাকা হলেও ছিনতাইয়ের ভয়ে ওইসব এলাকায় কেউ যায় না একটু রাত হলেই । এর আগে চুরি ছিনতাই রাহাজানি ওই এলাকায় মার্ডার পর্যন্ত ঘটনা মতো ঘটনা পর্যন্ত ঘটে গেছে। আরো জানা যায় যে ইয়াবা হিরোইনের মত মরন নেশায়, উঠতি বয়সের যুবসমাজ ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে, নেশার টাকা যোগাড় করতেই চুরি ছিনতাই এর মত ঘটনা তারা ঘটাচ্ছে। এলাকার শান্তি প্রিয় মানুষ ও সাধারণ মানুষরা জানায় তারা পুলিশ কমিশনার বরাবর দরখাস্ত করেছে এলাকার শান্তি ফিরিয়ে আনার জন্য, এতে তারা উল্টো তোপের মুখে পড়েছে নেশা ব্যবসাইর কছে।
পুলিশ আসলে তাদের সোর্স দারা আগেই জেনে যায়। এলাকাবাসী জানায় ঘনঘন অভিযান ও পুলিশি টহল জোরদার করলে এসব এলাকা সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চুরি রাহাজানি থেকে তারা রক্ষা পেত। মাঝে মাঝে অভিযান চলে কিন্ত কোন ভাবেই যেনো থামানো যাচ্ছে না, এই নেশাখোরদের ও মাদক ব্যবসায়ীদের দৌরাত্ম্য। এলাকার নাগরিক সমাজ সুশীল সমাজ ও এলাকাবাসীর দাবি করেন এখানে ঘনঘন পুলিশ অভিযান অব্যাহত রাখা হোক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *