রুপসা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অভিনব উদ্যোগে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম অব্যাহত

চাকরির খবর
মোঃ রুবেল হোসাইন তুহিন তালুকদার, স্টাফ রিপোর্টারঃ

পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকি, সুস্থ জীবন নিশ্চিত করি’-এই স্লোগানকে সামনে রেখে খুলনা জেলার রূপসায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মরত সকল কর্মকর্তা- কর্মচারীদের নিজস্ব উদ্যোগে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

বৃহস্পতিবার ১৭ নভেম্বর ২০২২ এর সকাল সাড়ে ৯ টা হতে সকাল ১০ টা পর্যন্ত এ প্রতিষ্ঠানটির সকল সদস্যদের সম্মিলিত উদ্যোগে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়।

সপ্তাহের প্রতি বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯ টা হতে সকাল ১০ টা পর্যন্ত বিগত কয়েক মাসের চলমান কর্মসূচির অংশ হিসেবেই এ কার্যক্রম।

তাদের উদ্দেশ্য সৌন্দর্য বৃদ্ধির লক্ষ্যে পুরো ক্যাম্পাস সব সময় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা রাখা।

এসময় সেবা কেন্দ্রের সকল কর্মকর্তা -কর্মচারী স্বতস্ফূর্তভাবে এ কার্যক্রমে অংশ নেয়।

এ অনুষ্ঠানের দল নেতার নেতৃত্বে ছিলেন প্রতিষ্ঠানটির স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ শেখ সফিকুল ইসলাম।

জানাগেছে এই কর্মকর্তার হাত ধরেই রূপসা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সাফল্য।

স্বাস্থ্য সেবার উন্নয়নে ও চিকিৎসার মানের পেছনের মূল কারিগর তিনি।তাকে এ প্রতিষ্ঠানের আধুনিক রূপকার বলে আখ্যায়িত করছেন কেউকেউ ।

তথ্য অনুযায়ী ডাঃ শেখ সফিকুল ইসলাম ২০২১ সালের ২২ জুন থেকে রূপসা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করেছেন।

এ প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তা কর্মচারীদের মধ্যে কয়েকজন জানান অল্প দিনে তিনি যোগদান করলেও ধারাবাহিক সাফল্যের পেছনে এই কর্মকর্তার দূরদর্শী নেতৃত্বের বড় ভূমিকা রয়েছে।

তাছাড়া অন্য সকল কর্মকর্তা- কর্মচারীদের সম্পর্ককে সুদৃঢ় করেছেন।

পুরো প্রতিষ্ঠানকে সাজাতে চলছেন এক অনন্য স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র হিসেবে।

পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রমে অংশ নেয়া কয়েকজন সেবিকা জানান, প্রতিষ্ঠান আমাদের তাই আমাদের উচিত নিজ উদ্যোগে এটা সুন্দর রাখা।

শুধু পরিষ্কার করা নয়, আমাদের মানসিকতা থাকবে যে আমরা যত্রতত্র ময়লা ফেলে ক্যাম্পাসকে অপরিস্কার করব না।

সেই জায়গা থেকেই স্যারের নির্দেশনা ক্রমে আমরা নিজেদের ক্যাম্পাস পরিষ্কার রাখার জন্য এই কার্যক্রমে অংশ নিয়েছি।

এব্যাপারে ডাঃ শেখ সফিকুল ইসলাম বলেন, আগে যেখানে-সেখানে ময়লা আবর্জনা ফেলা হতো।

আমাদের জায়গা যদি নিজেরাই পরিষ্কার করে রাখা যায়, তাহলে আসলেই দেখতে সুন্দর হয়।
কাগজপত্র ও ময়লা আবর্জনা এদিক-সেদিক না ফেলে ডাস্টবিনে রাখার জন্য তিনি সকলকে আহবান জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *