ইউরোপ পাঠানোর কথা বলে তিন লাখ টাকা আত্মসাৎ আদালতে অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার:

ভালো বেতনের চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে ইউরোপ পাঠানোর নামে নবীগঞ্জের এক ব্যক্তির কাছ থেকে তিন লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ভুক্তভোগী ব্যক্তিরা সর্বস্ব হারিয়ে পরিবার-পরিজন নিয়ে এখন বিপাকে পড়েছেন। প্রতারণার শিকার ওই ব্যক্তি হলেন নবীগঞ্জ উপজেলার দেওপাড়া ইউনিয়নের সাতাইহাল গ্রামের মৃত আবদুল আজ্জিজের পুত্র দুবাই প্রবাসী মহসিন আহমেদ, এলাকায় একাধিকবার গ্রাম্য সালিস হলেও কোনো সুরাহা হয়নি। পরে পাওনা টাকা ফেরত পেতে ভুক্তভোগীরা সম্প্রতি নবীগঞ্জ উপজেলার কালিয়ারভাঙ্গা ইউনিয়নের কালিয়ারভাঙ্গা গ্রামের নিজাম উদ্দিনের পুত্র আমীর উদ্দিন (৩৮) , রাহেলা বেগম (২৮) ও আমীর উদ্দিনের স্ত্রী রাজনা বেগমের বিরুদ্ধে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কগ-৫ আদালত, হবিগঞ্জ আদালতে অভিযোগ করেছেন। অভিযোগ সুত্র ও ভুক্তভোগীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ভালো বেতনের চাকরি ও সুযোগ-সুবিধার প্রলোভন দেখিয়ে পর্তুগাল পাঠানোর কথা বলে আমীর উদ্দিন সহ উভয় পক্ষের আলোচনায় ১৪ লাখ টাকা সাব্যস্থ হয়। গত বছর ০৫/০৭/২০২৩ ইংরেজি বুধবার সকাল ১০.০০ ঘটিকার সময় অভিযোগকারীর নিজ বসত ঘর হতে রাহেলা বেগম ও রাজনা বেগম তিন বান্ডিল এ আড়াই লাখ টাকা প্রদান করা হয়। তাছাড়া ০৭/০৮/২০২৩ সোমবার ব্যাংক চলাকালীন সময় রাজনা বেগম নামীয় ডাচ বাংলা ব্যাংক লিঃ আউশকান্দি শাখায় পঞ্চাশ হাজার টাকা জমা প্রদান করা হয়। পরবর্তীতে ০৬ মাস অতিবাহিত হওয়ার পর বার বার তারিখ দিয়ে সময় কর্তন করিতে থাকে। পরবর্তীতে পর্তুগাল নিতে পারিবে না বলে স্বীকার করে। যাহার কাগজ ও ভয়েজ রেকর্ড ভুক্তভোগীদের নিকট রয়েছে। এর পর থেকে স্বামী-স্ত্রী তাঁদের বিদেশে পাঠানোর কথা বলে কালক্ষেপণ করতে থাকেন। এ নিয়ে গ্রামে একাধিকবার সালিসও হয়। টাকা নেওয়ার বিষয় অস্বীকার করে আমীর উদ্দিন বলেন, সে আমাকে কোনো টাকাপয়সা দেয়নি। এ ব্যাপারে বাদীপক্ষের আইনজীবী মোঃ জহিরুল আলম তুহিন বলেন, সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কগ-৫ আদালত, হবিগঞ্জ অভিযোগটি নবীগঞ্জ থানা কে তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *